Analyst Forum

অ্যাকাউন্টিং ইয়ার কাকে বলে?

Posted By : iftekhar    April 14, 2019   

image not available

অ্যাকাউন্টিং ইয়ার কাকে বলে? বিনিয়োগকারীদের এটা জানার প্রয়োজন আছে কি?

বৎসর কাকে বলে ? ১২ মাসে এক বৎসর। যেকোনো মাস থেকে ১২ মাস হিসাব করা যায়। ইংরেজি ক্যালেন্ডার ইয়ার অর্থাৎ জানুয়ারি-ডিসেম্বর’কেও বৎসর বলা হয়। জুলাই-জুন-কেও বৎসর বলা হয়। এটির নাম আর্থিক বৎসর। কোম্পানি যে ১২ মাসকে নিয়ে তাদের বৎসর গণনা করে থাকেন তাকেই অ্যাকাউন্টিং ইয়ার বা হিসাব বৎসর বলে। কোনো কোম্পানির হিসাব বৎসর যেকোনো মাস থেকে হতে পারে। তবে আমাদের দেশের বেশ কিছু কোম্পানি জানুয়ারি-ডিসেম্বরকে হিসাব বৎসর ধরে থাকেন। এদের মধ্যে ব্যাংক ও বিমা কোম্পানি অন্যতম। অনেকেই জুলাই-জুন হিসাব বৎসর ধরে থাকেন। এর ব্যতিক্রমও হতে পারে। এ্যাপেক্স স্পিনিং এবং স্কয়ার ফার্মা’র হিসাব বৎসর ১লা সেপ্টেম্বর থেকে ৩১শে মার্চ। মিউচ্যুয়াল ফান্ডের ক্ষেত্রে প্রায় সবগুলোর হিসাব বৎসর জুলাই থেকে জুন। হিসাব বৎসরে হিসাব রাখা অনেক জরুরি। হিসাব বৎসর শেষ হলে ৬ মাসের মধ্যে এজিএম করতে হয়। এজিএম করার জন্য কমপক্ষে ১৪ দিন আগে নোটিশ দিতে হয়। এজিএম-এর নোটিশ দেওয়ার পূর্বে বোর্ড মিটিং করে হিসাব বৎসরের হিসাব অনুমোদন করতে হয়। কত হারে ডিভিডেন্ড দিবেন বা বোনাস দিবেন বা রাইট দিবেন সেটি বোর্ড মিটিং-এ অনুমোদিত হতে হয়। প্রায় দেখা যায় কোনো না কোনো ভাবে খবর নিয়ে কানাকানি জানাজানি হয়ে যায়। শেষ বোর্ড মিটিং-এর জন্য প্রস্তুতকৃত সকল তথ্য মূল্য সংবেদনশীল। পরিচালক, নিরীক্ষক, তাদের পরিবারের সদস্য, তাদের সঙ্গে কাজ করে এমন সব কর্মচারীগণ আইনের ভাষায় ইনসাইডর। গোপন তথ্য জেনে ট্রেড করা বেআইনী। এই নিয়ম না মানার জন্য বিএসইসি অনেককেই জরিমানাও করেছে। এজিএম ও বোর্ড মিটিং-এর সম্ভাব্য তারিখের কাছাকাছি সময়ে কোনো শেয়ারের মূল্য উর্ধ্বমুখী হতে দেখলে কেনা বা নিম্নমুখী হলে বিক্রি করে বেশি লাভ করা সম্ভব।

কোম্পানিগুলোর আর্থিক বছর জুলাই-জুন হিসেবে পরিপালনের জন্য বাংলাদেশ গেজেট প্রকাশ করে। এ সার্কুলার  অনুসারে সকল করদাতা  কে অ্যাকাউন্টিং ইয়ার জুলাই-জুন করার জন্য নির্দেশ প্রদান করা হয়। কেবলমাত্র বিদেশী কোম্পানীগুলো এ আওতার বহির্ভূত। এই নির্দেশ পরিপালনের জন্য অনেক লিস্টেড কোম্পানিকে ২০১৭ সালে ১৮ মাসের এজিএম করতে দেখা যায়। এধরনের নির্দেশ পুজিবাজার বান্ধব নয়। এক দুই সপ্তাহের ব্যবধানে প্রায় সব কোম্পানির সংবেদনশীল তথ্য প্রকাশিত হবে। একই সেক্টরে সব কয়টি কোম্পানির ফলাফল খারাপ আসলে বাজারে ধস নামবে। কারণ হিসেবে বলা যায় প্রায় একই সপ্তাহে জুনে সমাপ্ত বছরের কোম্পানীগুলোকে ১ম, ২য় এবং ৩য় কোর্টারের তথ্য প্রকাশিত হবে। একই ভাবে বার্ষিক সাধারণ সভার তথ্য সংবেদনশীল তথ্য প্রায় একই সময়ে প্রকাশিত হবে । আইন করে সকলের জন্য একই হিসাব বৎসর ঠিক করে দেওয়া পুঁজিবাজার বান্ধব নয়।

 

মোহাম্মদ মহিউদ্দিন, এফসিএমএ

প্রাক্তন সভাপতি(১৯৯৫)আইসিএমএবি

ব্যবস্থাপনা পরিচালক,

আইল্যান্ড সিকিউরিটিজ লিমিটেড।

ঢাকা স্টক একচেঞ্জ ট্রেক নং-১০৬,

চট্টগ্রাম স্টক একচেঞ্জ ট্রেক নং-০০৫,

লেখক: শেয়ার বাজার জিজ্ঞাসা 

֩ Comments (0)

No comments, be the first who add

Administrator

Close Name:

Password:

Add Comment

Close       
     
-
-


B I U URL    :) :( :P :D :S :O :=) :|H :X :-*

Add this verification code:   dabf2



Analyst Forum