Analyst Forum

বিও একাউন্ট খোলার জন্য TIN বাধ্যতামূলক নয়

Posted By : iftekhar    May 14, 2019   

image not available

বিও একাউন্ট খোলার জন্য TIN বাধ্যতামূলক নয়

শেয়ারবাজারে বেনিফিশিয়ারি ওনারস (বিও) অ্যাকাউন্ট খোলার ক্ষেত্রে বিনিয়োগকারীদের করদাতা শনাক্তকরণ নম্বর (টিআইএন) থাকা বাধ্যতামূলক করা হয়নি। বিনিয়োগকারীরা আগের নিয়ম অনুযায়ী টিআইএন ছাড়াও বিও অ্যাকাউন্ট খুলতে পারবেন। সম্প্রতি এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এ কথা জানিয়েছে জাতীয় রাজস্ব বোর্ড (এনবিআর)।

বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়েছে, আসন্ন ২০১৯-২০ অর্থবছরের জাতীয় বাজেটকে ব্যবসা ও বিনিয়োগবান্ধব এবং জনমুখী করার লক্ষ্যে এনবিআর বিভিন্ন স্টেকহোল্ডারের সঙ্গে প্রাক-বাজেট পরামর্শ ও আলোচনা সভা করছে। এরই ধারাবাহিকতায় সম্প্রতি ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জ (ডিএসই) ও বাংলাদেশ ইন্স্যুরেন্স অ্যাসোসিয়েশনের (বিআইএ) প্রতিনিধিদের সঙ্গে এনবিআরের একটি আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়।

সেগুনবাগিচায় এনবিআর কার্যালয়ের সম্মেলন কক্ষে মঙ্গলবার (১৬ এপ্রিল) সকালে প্রাক বাজেট আলোচনায় সভাপতির বক্তব্যে জাতীয় রাজস্ব বোর্ডের (এনবিআর) চেয়ারম্যান মোশাররফ হোসেন ভূঁইয়া জানিয়েছেন, পুঁজিবাজারে বিনিয়োগকারীদের বেনিফিশিয়ারি ওনার (বিও) অ্যাকাউন্ট খুলতে টিআইএন (আয়কর সনদ) বাধ্যতামূলক নয়।এনবিআর চেয়ারম্যান বলেন, আমাদের একদিন আলোচনার প্রসঙ্গে স্টক এক্সচেঞ্জ এবং আরও কয়েকটি ইন্স্যুরেন্স অ্যাসোসিয়েশন ছিল। আমি প্রাসঙ্গিকক্রমে স্টক এক্সচেঞ্জের নির্বাহী পরিচালকদের জিজ্ঞাসা করেছিলাম যে, আপনাদের বিও অ্যাকাউন্ট খোলায় জন্য টিআইএন লাগে কি না। কিন্তু একটি সংবাদপত্রে লেখা হয়েছিল বিও অ্যাকাউন্ট করতে টিআইএন বাধ্যতামূলক হচ্ছে।

বিএসইসি’র চেয়ারম্যান বর্তমানে পুঁজিবাজারে সূচক কমার অনেকগুলো কারণের মধ্যে টিআইএন ইস্যুকে দায়ী করে এনবিআর চেয়ারম্যানকে জানিয়েছেন উল্লেখ করে মোশাররফ হোসেন ভূঁইয়া বলেন, এখন যে পদ্ধতিতে বিও খোলা যায় ভবিষ্যতেও একই পদ্ধতিতে বিও খোলা যাবে।তাই বিও অ্যাকাউন্ট করার ক্ষেত্রে টিআইএন বাধ্যতামূলক হবে না।

এতে এনবিআর চেয়ারম্যান ও অভ্যন্তরীণ সম্পদ বিভাগের জ্যেষ্ঠ সচিব মো. মোশাররফ হোসেন ভুঁইয়ার এক প্রশ্নের জবাবে ডিএসইর ব্যবস্থাপনা পরিচালক তাকে জানান, বিও অ্যাকাউন্টধারীদের সবারই টিআইএন রয়েছে। সভায় বিআইএর পক্ষ থেকে জানানো হয়, বীমা পলিসি খোলার ক্ষেত্রে টিআইএনের ব্যবহার বাধ্যতামূলক রয়েছে।

এ দুই তথ্যের ভুল বোঝাবুঝিতে সম্প্রতি গণমাধ্যমে এনবিআর চেয়ারম্যানকে উদ্ধৃত করে সংবাদ প্রকাশ করা হয় যে, বিও অ্যাকাউন্ট খোলার ক্ষেত্রে বিনিয়োগকারীদের টিআইএন থাকা বাধ্যতামূলক করা হচ্ছে। এ সংবাদ প্রকাশের পর বিভিন্ন মহলে মিশ্র প্রতিক্রিয়া তৈরি হয়, যা দূর করার জন্য এনবিআরের পক্ষ থেকে ব্যাখ্যা-সংবলিত বিজ্ঞপ্তিটি ইস্যু করা হয়েছে।

বর্তমানে পুঁজিবাজারে সূচক কমার অনেকগুলো কারণের মধ্যে টিআইএন ইস্যুটিও নাকি একটি বলে বিএসইসি’র চেয়ারম্যান এনবিআর চেয়ারম্যানকে জানিয়েছেন উল্লেখ করে মোশাররফ হোসেন ভূঁইয়া বলেন, এখন যে পদ্ধতিতে বিও খোলা যায় ভবিষ্যতেও একই পদ্ধতিতে বিও খোলা যাবে। বিও অ্যাকাউন্ট করার ক্ষেত্রে টিআইএন বাধ্যতামূলক হবে না।

মোশাররফ হোসেন বলেন, নতুন ভ্যাট আইন করার ক্ষেত্রে আমরা বিশেষ সুবিধাগুলো একেবারেই ফেলে দিতে পারবো না। কাজেই কিছু কিছু জায়গায় আমরা বিশেষ সুবিধা রাখবো।

তিনি বলেন, ‘কাস্টমস্ ডিউটি কিভাবে কমানো যেতে পারে সে বিষয়টি আমরা দেখবো। এনবিআর শুধু রাজস্ব আহরণেই কাজ করে না, দেশের শিল্পায়ন এবং ব্যবসা বাণিজ্য কিভাবে বৃদ্ধি পাবে সে লক্ষ্যেও আমরা কাজ করছি।’

বরাবরের মতো এবারের বাজেটেও শিল্পায়নকে গুরুত্ব দেয়া হচ্ছে উল্লেখ করে মোশাররফ হোসেন বলেন, ক্ষুদ্র এবং মাঝারী শিল্প গড়ে তোলার পাশাপাশি কিভাবে আরো বেশি রাজস্ব পাওয়া যায় সেদিকে সবার দৃষ্টি রাখতে হবে। তিনি বলেন, আমরা সবার বাজেট প্রস্তাব গুরুত্বের সঙ্গে নিয়েছি। আলাপ আলোচনার মাধ্যমে আগামী বাজেটে সেগুলো অন্তর্ভূক্ত করা হবে।

সভায় রিহ্যাবের পক্ষ থেকে ফ্ল্যাট ও প্লট রেজিস্ট্রেশন কর ও ফি ৭ শতাংশে নির্ধারণ,আবাসনখাতে বাংলাদেশ ব্যাংক থেকে সিঙ্গেল ডিজিট সুদে দীর্ঘমেয়াদী রিফাইন্যান্সিং চালু এবং ২০ হাজার কোটি টাকার তহবিল গঠন, বৈধভাবে উপার্জিত অপ্রদর্শিত অর্থ আবাসনে বিনিয়োগের সুযোগ দেয়ার জন্য আয়কর অধ্যাদেশের যুগপোযোগী সংশোধনসহ একাধিক প্রস্তাব করা হয়।

বাংলাদেশ স্টিল ম্যানুফ্যাকচারার্স এসোসিয়েশন বিদ্যমান টার্নওভার ট্যাক্স শুন্য ৬ শতাংশের পরিবর্তে শুন্য ৩০ শতাংশ নির্ধারণ করা এবং সর্বোচ্চ করপোরেট ট্যাক্স ৩৫ শতাংশের পরিবর্তে ২৫ শতাংশ নির্ধারনের প্রস্তাব করে।

֩ Comments (0)

No comments, be the first who add

Administrator

Close Name:

Password:

Add Comment

Close       
     
-
-


B I U URL    :) :( :P :D :S :O :=) :|H :X :-*

Add this verification code:   47ce8



Analyst Forum